রংধনু এডভার্টাইজার্স – সিদ্দিক মাহমুদুর রহমান ৯

৯ হঠাৎ সকালে সিঁড়িতে দেখা মেয়েটার কথা মনে পড়ে যায় সুলতানের। মিঠুর মার কাছে কি কোন খবর পাওয়া যাবে? খেয়ে উঠে বেসিনে হাতমুখ ধুতে ধুতে মিঠুর মাকে সুলতান বলে, ‘বাসনপত্র গুছিয়ে, ঘরে এসো একটু, কথা আছে।’ বলেই মনে হয় মিঠুর… Continue reading

রংধনু এডভার্টাইজার্স – সিদ্দিক মাহমুদুর রহমান ৮

৮ শাহেদের সাথে আগেও আলাপ ছিল সুলতানের। বেশ হাসিখুশী, তাই ভাল লেগেছিল। কিন’ আজ ওর গম্ভীর নির্লিপ্ত ব্যবহারে বিরক্ত হলো ও। ভাবলো না হয় প্রমোশন পেয়ে বড় অফিসার হয়েছেন, তাই বলে আমি তো আর আপনার কর্মচারী নই যে, আমার সাথে… Continue reading

রংধনু এডভার্টাইজার্স – সিদ্দিক মাহমুদুর রহমান ৭

৭ ‘ব্যস, এইটুকুই কি যথেষ্ট নয়?’ বাধা দেয় সুলতান। ‘না আরও আছে, তোমার সাথে একটা মেয়ে দরকার। পার্ল টয়লেট্রিজ আর লোকস্বাস’্য দুই প্রতিষ্ঠানই তাদের প্রোডাক্টের জন্যে নতুন মুখ চায়। তুমি নতুন মেয়ে আনবে।’ ‘অবজেকশন, হুসেন ভাই। আপনি খুব অশালীনভাবে মেয়ে… Continue reading

রংধনু এডভার্টাইজার্স – সিদ্দিক মাহমুদুর রহমান ৬

৬ শাহনাজ ওর ঘর থেকে চলে যাবার পরও অনেকক্ষণ চুপ করে বসে থাকে সুলতান। এখন যেন ওর চারপাশকে, নিজেকে, সবাইকে একটু অন্য রকম লাগছে। এতদিনকার বিরক্তি আর অসি’রতা যেন একটু একটু করে গলে যাচ্ছে। কি করবে বুঝে না পেয়ে বিছানা… Continue reading

রংধনু এডভার্টাইজার্স – সিদ্দিক মাহমুদুর রহমান ৫

৫ হাসলেন শাহনাজ। নিঃসংকোচে উত্তর দিলেন, ‘অধিকার নেই একথা মিথ্যে, আছে। চেষ্টাও করেছিলাম অনেক, কিন’ পারলাম কই? পারলে কি আর তোমাকে বলি? যতবার ফেরাতে গেছি উনি কি বলেছেন জানো?’ শাহনাজ থামলেন। সুলতান তাকিয়ে থাকে। ‘শুনবে? বলেন, একমাত্র ছেলে আমার, আমাকে… Continue reading

রংধনু এডভার্টাইজার্স – সিদ্দিক মাহমুদুর রহমান ৪

৪ আদর যেটুকু পাওয়ার সেটুকু কেবল পেয়েছে ওর মামার কাছ থেকে। মামা ওকে খুবই আদর করতেন। নিজের ছেলেকেও বুঝি অতোটা করতেন না। নানী মাঝে মাঝে ধমক দিতে গেলে উল্টে মামাই নানীকে দু’কথা শুনিয়ে দিতেন। ও মায়ের কাছে গেলেই মামা যেন… Continue reading

রংধনু এডভার্টাইজার্স – সিদ্দিক মাহমুদুর রহমান ৩

৩ কিন’ সেটা প্রকাশ করলেন না তিনি। শান্ত গলায় বললেন, ‘একটা কিছু করবি তো? স্ক্রীন আর টিভি নিয়ে ছিলি, না হয় সে সব নিয়েই থাকতিস। তা’ছাড়া লিখছিলিও তো ভালো – লেখাটেখা বের হচ্ছিল দেখলাম। দ্যাটস্‌ অলসো নট ব্যাড্‌। ডু সামথিং-… Continue reading

রংধনু এডভার্টাইজার্স – সিদ্দিক মাহমুদুর রহমান – ২

২ ‘আব্বা এখনও উঠলে না? ঘর ঝাড়ু দেবো তো?’ আর শুয়ে থাকতে পারে না সুলতান, উঠতে হয়। না উঠে উপায় কি? সাত সকালে ঘর দুয়ার ঝাড়া-মোছা করা ওর অভ্যাস। বলে, না হলে নাকি সংসারে অকল্যাণ হয়। দরজার ছিটকানী খুলে রাগ… Continue reading

রংধনু এডভার্টাইজার্স – সিদ্দিক মাহমুদুর রহমান

১ দরজায় কড়া নাড়ার শব্দে সুলতানের ঘুমটা চটকে যায়। বিরক্তিতে মনটা একেবারে তেতো হয়ে ওঠে ওর। গতরাতে বাসাতেই ফিরেছে সাড়ে বারোটার সময়। তারপরও ঘুমটা কায়দায় আনতে আরও ঘন্টাখানেক অহেতুক সময় নষ্ট করে, শেষে না পেরে ঘুমের বড়ি গিলে প্রায় রাত… Continue reading

অপ্রেম কথা – ৫

শরমিন বাসা থেকে যখন বের হলো, তখন ওর ঘড়িতে সকাল সাড়ে ছয়টা। বাড়ির কেউ ঘুম থেকে ওঠেনি। কেবল কিচেনে খুটখাট শব্দ শোনা যাচ্ছে। ও ওর দোতলার ঘর থেকে ব্যাগটা কাঁধে ফেলে বের হয়ে প্রায় নিঃশব্দে নেমে এলো এক তলায়। ড্রইংরুমটা… Continue reading

আমরা সবাই শূন্যই

সিদ্দিক মাহমুদুর রহমান ডিসকভারী চ্যানেলে একটা ছবি দেখেছিলাম– একদল হরিণের পিছনে ছুটছে চিতা। অনেকক্ষণ ধরে ছোটার পর চিতাটি একটি হরিণকে ধরে ফেল্লো। আর অন্য সব হরিণ ছোটাছুটি বন্ধ করে দিলো। দেশে এক একটা হত্যাকান্ড হয়, আর কদিন আমরা চেঁচাই, তারপর… Continue reading

একটি ব্যাংকিং জাতি গড়ার প্রত্যয়ে (To build a banking nation)

‘একটি ব্যাংকিং জাতি গড়ার প্রত্যয়ে’ (ঞড় নঁরষফ ধ নধহশরহম হধঃরড়হ) বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো ব্যাংকিং মেলা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। আগামী ২৪ নভেম্বর থেকে ২৮ নভেম্বর, ২০১৫ পর্যনৱ পাঁচদিন ব্যাপী বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে এ মেলা অনুষ্ঠিত হবে। এ মেলায় বাংলাদেশ ব্যাংকসহ সকল… Continue reading

কোলকাতা,ও কোলকাতা ৩ * সিদ্দিক মাহমুদুর রহমান

কলকাতা, ও কলকাতা ১৯৫৩ থেকে ১৯৬৫ ১৯৫২ সালের শেষের দিকে কলকাতায় এসে আমরা প্রথমে যে বাসায় গিয়ে উঠলাম সেটা ব্রাইট স্ট্রিটের পেছনের একটা গলিতে আব্বার এক সহকর্মীর বাসায়। এলাকা টা প্রায় ঢাকার আমলিগোলার মতোই। কলকাতায় এসে আমার প্রথম যে অভিজ্ঞতাটা… Continue reading

কোল্কাতা, ও কোল্কাতা ২ – সিদ্দিক মাহমুদুর রহমান

যশোর থেকে ঢাকা ১৯৪৬-১৯৫৩ ঊনিশ শ’ সাতচল্লিশ সালের ১৪ আগস্টে রাজনৈতিক নেতা আর ইংরেজ শাসকদের কলমের খোঁচায় সহশ্র বছরের অবিভক্ত ভারত, পাকিস-ান ও ভারত নামে দুটি পৃথক রাষ্ট্র হিসেবে দেখা দিলেও এই অসম বিভক্তির কারণে দুই দেশের কোটি কোটি মানুষ… Continue reading